শনিবার , ৬ মে ২০২৩, ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:১৬

সিটি নির্বাচন: সভা করার ২৪ ঘণ্টা আগে পুলিশকে জানাতে হবে 

ডেস্ক রিপোর্ট
মে ৬, ২০২৩ ৫:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সিটি করপোরেশন নির্বাচন আইন অনুযায়ী, প্রার্থী বা তার পক্ষে কোনো রাজনৈতিক দল পথসভা বা ঘরোয়া সভা ছাড়া কোনো সভা করতে পারবে না। অন্যদিকে, পথসভা বা ঘরোয়া সভা করতে হলে ২৪ ঘণ্টা আগে পুলিশকে জানাতে হবে।

সম্প্রতি নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত কিছু নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে। সেই নির্দেশনায় এ নির্বাচনি আইনের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে এনটিভি অনলাইনকে জানান আতিয়ার রহমান।

নির্বাচনি আইন অনুযায়ী, কোনো প্রার্থী বা প্রার্থীর পক্ষে অন্য কোনো ব্যক্তি, সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান পথসভা ও ঘরোয়া সভা ছাড়া কোনো জনসভা বা শোভাযাত্রা করতে পারবেন না। নির্বাচনী আচরণবিধি না মানলে জেল, জরিমানা, এমনকি প্রার্থিতা বাতিল হতে পারে।

আইনের কথা স্মরণ করিয়ে নির্দশনায় বলা হয়েছে, পথসভা বা ঘরোয়া সভা করতে চাইলে প্রস্তাবিত সভার কমপক্ষে ২৪ ঘণ্টা আগে স্থান এবং সময় সম্পর্কে স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে। যাতে ওই স্থানে চলাচল ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

নির্বাচনি আইন অনুযায়ী, প্রার্থীরা জনগণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে পারে এমন কোনো সড়কে পথসভা করতে পারবেন না বা এই উদ্দেশ্যে কোনো মঞ্চ তৈরি করতে পারবেন না। প্রতিপক্ষের পথসভা বা ঘরোয়া সভা বা অন্যান্য প্রচারাভিযান পণ্ড বা তাতে বাধা প্রদান বা কোনো গোলোযোগ সৃষ্টি করতে পারবেন না। কোনো পথসভা বা ঘরোয়া সভা অনুষ্ঠানে বাধাপ্রদানকারী বা অন্য কোনোভাবে গোলযোগ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশের শরণাপন্ন হবেন এবং এই ধরনের ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নিজেরা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন না।

নির্বাচনি প্রচার এখনও শুরু হয়নি। প্রতীক বরাদ্দ হলে প্রচারে যেতে পারবেন প্রার্থীরা।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।